প্রতিদিন ২টি খেজুর আপনাকে ৭টি রোগের হাত থেকে রক্ষা করবে

খেজুর খুব পরিচিত একটি ফল। সারা বছর বাজারে খেজুর পাওয়া গেলেও আমরা মূলত রমজান মাস এলে খেজুর খেয়ে থাকি। অথচ এই খেজুরে এমন সব উপাদান আছে যা আপনার রক্তের কোলেস্টেরল কমানোর সাথে সাথে ক্যান্সারের মত কঠিন রোগও প্রতিরোধ করে থাকে। প্রতিদিন দুইটি খেজুর আপনাকে অনেক রোগের হাত থেকে রক্ষা করবে।

আসুন জেনে নিই খেজুরের এমনি কিছু স্বাস্থ্যগত গুণের কথাঃ

১। দ্রুত শক্তি প্রদানকারী

খেজুরে আছে গ্লুকোজ, ফ্রুক্টোজ, সুক্রোজ যা আপনাকে শক্তি দিয়ে থাকে। এটি খুব দ্রুত কাজের শক্তি ফিরিয়ে নিয়ে আসে শরীরে। আপনি যদি খুব ক্লান্ত থাকেন তখন কিছু খেজুর খাবেন, দেখবেন শরীরের ক্লান্তি এক নিমিষে দূর হয়ে গেছে।

২। রক্ত স্বল্পতা দূর করে

যারা রক্তস্বল্পতায় ভুগছেন। তারা নিয়মিত খেজুর খেতে পারেন। খেজুর রক্ত উৎপাদন করে দেহের রক্তের চাহিদা পূরণ করে থাকে।

৩। কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে

খেজুরে কোনো কোলেস্টেরল এবং বাড়তি পরিমাণে চর্বি থাকে না। ফলে আপনি সহজেই খেজুর খাওয়া শুরু করে অন্যান্য ক্ষতিকর ও চর্বি জাতীয় খাবার থেকে দূরে থাকতে পারবেন।

৪। ওজন কমিয়ে থাকে

মাত্র কয়েকটা খেজুর কমিয়ে দেয় ক্ষুধার জ্বালা। এবং পাকস্থলীকে কম খাবার গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে। আর এই কয়েকটি খেজুর শরীরের শর্করার চাহিদাও পূরণ করে থাকে। ফলে আপনি শর্করা জাতীয় খাদ্য গ্রহণ না করলেও শরীরে শর্করার অভাব হয় না।

৫। হজমে সাহায্য করে

কখনো বেহিসেবি খাওয়াদাওয়া করে ফেললে, অনেক সময় বদহজম হয়ে যায়। এই সমস্যা থেকে সহজে মুক্তি দেবে কয়েকটি খেজুর।

৬। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে

খেজুরে আছে এমন সব পুষ্টিগুণ যা খাদ্য পরিপাক হতে সাহায্য করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য রোধ করে। ডায়রিয়া হলে কয়েকটি খেজুর খান। এটি ডায়রিয়া রোধ করতে সাহায্য করবে।

৭। ক্যান্সার প্রতিরোধ

অবাক হলেও সত্য খেজুর ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। এক গবেষনায় দেখা যায় খেজুর পেটের ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। আর যারা নিয়মিত খেজুর খান তাদের বেলায় ক্যান্সারের ঝুঁকিটা কমে যায় অনেকখানি।

Comments are closed.