একেবারেই ওজন কম? জেনে নিন স্বাস্থ্যকর ও দ্রুত ওজন বাড়ানোর উপায় !!

ওজন বেড়ে যাওয়া যেমন সমস্যার, তেমনই ওজন একেবারে কমে যাওয়াও অনেক বড় একটি সমস্যা। যাদের ওজন একেবারেই কম একমাত্র তারাই জানেন কি ধরণের যন্ত্রণা পোহাতে হয় ওজন কম হলে। ওজন বাড়ানোর অনেক চেষ্টাই বিফল হয়। অনেকের ধারণা ফ্যাট সমৃদ্ধ খাবার, বেশি খাবার খাওয়া হলেই ওজন কমের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

কিন্তু অস্বাস্থ্যকর খাবার দেহের ওজন বাড়ায় ঠিকই, তবে শরীরের অন্যান্য সমস্যার জন্য দায়ী হয়। এবং অতিরিক্ত খাবার খাওয়া কিন্তু আপনার স্বাস্থ্য বাড়াবে ভিন্ন ভাবে। দেখা যাবে আপনার শুধুমাত্র পেটেরই মেদ বাড়ছে, দেহের অন্যান্য স্থানে ওজন বাড়ার চিহ্ন নেই। এতে শারীরিক গঠনও বিগড়ে যাবে। তাই স্বাস্থ্যকর উপায়ে ওজন বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা অনেক বেশি।

জেনে নিন স্বাস্থ্যকরভাবে কীভাবে দ্রুত ওজন বাড়াবেন তারই কিছু সহজ উপায়ঃ

৩ ঘণ্টার বেশি সমত পেট খালি রাখবেন না

৩ ঘণ্টা পরপরই কিছু না কিছু খাবার খান। সবচাইতে ভালো হয় যদি আপনি কার্বোহাইড্রেট এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খান। এতে করে ওজন বাড়বে তবে স্বাস্থ্যকর ভাবে।

একসাথে একটু বেশিই খাবার খান

যারা ওজন বেড়ে যাওয়ার সমস্যায় ভোগেন তাদের প্রধান কারণ হচ্ছে একসাথে বেশি খাবার খাওয়া। এই কাজটিই করুন যারা ওজন বাড়াতে চান। একসাথে একটু বেশি খাবার খান যা আপনার দেহে অনেকটা সময় ধরে থাকে। এতে করেও আপনার ওজন বাড়বে।

শারীরিক ব্যায়াম ভুলে যাবেন না

ওজন কম থাকলে অনেকেই ভাবেন ‘শারীরিক ব্যায়ামের কি প্রয়োজন?’। কিন্তু আপনি যদি দেহের ওজন বাড়ানোর জন্য খাবার খেতে থাকেন তা এবং দেহের ওজন পুরো দেহে সঠিক মাত্রায় বাড়াতে চান তাহলে অবশ্যই শারীরিক ব্যায়াম করবেন। নতুবা শুধু পেট বা কোমরেই মেদ জমতে থাকবে।

স্বাস্থ্যকর ক্যালরিসমৃদ্ধ খাবার খান

যেসকল খাবার স্বাস্থ্যের জন্য ভালো কিন্তু ক্যালরি একটু বেশি সেসকল খাবার খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। যেমন ধরুন, ড্রাইড ফ্রুটস। এগুলো স্বাস্থ্যকর খাবার এবং এতে ক্যালোরির পরিমাণও অনেক বেশি। এছাড়াও ডার্ক চকলেট, কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ খাবারও রয়েছে তালিকায়।

ঘুমুতে যাওয়ার আগে কিছু খাবার খান

যারা মুটিয়ে যান তাদের অনেকেরই এই অভ্যাস রয়েছে। এই অভ্যাসটি মূলত কাজে লাগাতে পারেন যারা ওজন বাড়াতে চান। তবে হ্যাঁ, অবশ্যই স্বাস্থ্যকর খাবার খাবেন। যেমন ধরুন, মুরগীর মাংস, পাস্তা সালাদ, প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার ইত্যাদি।

ক্যালরি সমৃদ্ধ পানীয় পান করুন

পানীয় পানের ব্যাপারেও ক্যালরি নিয়ে আসুন। তবে অবশ্যই সফট ড্রিংকস বা সোডা জাতীয় পানীয় নয়। দুধ, নারকেলের পানি/দুধ, চিনিযুক্ত ফলের জুস, স্মুদি ইত্যাদি পান করলেও স্বাস্থ্যকর উপায়ে ওজন বাড়াতে পারবেন।

Comments are closed.